1. sohelbl02384@gmail.com : admi2017 :
  2. editor@bulletinnews24.com : Bulletin News24 : Bulletin News24
শুক্রবার, ০২ অক্টোবর ২০২০, ১২:০৬ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
মশিউর রহমান হুমায়ুনের জন্মদিন উপলক্ষ্যে কিশোরগঞ্জ পৌর ছাত্রলীগের বৃক্ষরোপণ ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলা যুবদলের নবগঠিত কমিটির আহবায়ক হুমায়ুন,সদস্য সচিব শাহ আলম যশোরে অসহায় হতদরিদ্রের মাঝে খাদ্য সহায়তা প্রদান করেন জেলা পুলিশ যশোর ঠাকুরগাঁওয়ে সাংবাদিকের উপর হামলা ঠাকুরগাঁও জেলায় হয়ে গেল ভ্রাম্যমাণ তথ্য মেলা যশোর কেশবপুর বিশ বছর পর পৌর আওয়ামী লীগের কমিটি গঠন কিশোরগঞ্জ ফুটবল একাডেমীর উদ্বোধন অনুষ্ঠিত কুড়িগ্রামে অটো চালক বাদশা মিয়া’র হত্যাকারীকে গ্রেফতারের দাবীতে মানববন্ধন পাবনার সুজানগরের ৪ বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ ঠাকুরগাঁওয়ে জাতীয় ভিটামিন “এ” প্লাস ক্যাম্পেইন কর্মশালা অনুষ্ঠিত

বাংলাদেশ ছাত্রলীগ নিয়ে ছাত্রলীগ কর্মী আখতারের কিছু কথা

  • আপডেট সময় রবিবার, ৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০

বুলেটিন ডেস্ক: একটা যৌথ পরিবারের নাম বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। ছাত্রলীগের প্রতিটা কর্মী বুকের পাঁজরে দেশ,বঙ্গবন্ধু দেশের মানুষ আর শেখ হাসিনাকে ধারণ করে।

বাঙালি জাতিসত্তার সাথে মিশে থেকে জাতির উত্থানের সব ইতিহাসের প্রত্যক্ষ সাক্ষী বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। ভাষা আন্দোলন থেকে মুক্তিযুদ্ধ, এরপর স্বৈরাচার এরশাদের পতন থেকে ১/১১ সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের কূটকৌশল এবং সেনাশাসন থেকে দেশকে রক্ষা করার মাধ্যমে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের যে আন্দোলন-সংগ্রাম রয়েছে তার সঙ্গে ছাত্রলীগের নাম অঙ্গাঙ্গিভাবে জড়িত।

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের দীর্ঘ পথ চলার এই ইতিহাস জাতির মুক্তির স্বপ্ন,সাধনা এবং সংগ্রামকে বাস্তবে রূপদানের ইতিহাস। প্রতিষ্ঠার পর থেকেই প্রতিটি গণতান্ত্রিক আন্দোলন সংগ্রামে নেতৃত্ব দিয়েছে সংগঠনটি। ’৫২ এর ভাষা আন্দোলনে, ’৫৪ এর যুক্তফ্রন্ট নির্বাচন, ’৫৮ এর আইয়ুববিরোধী আন্দোলনে ছাত্রলীগ গৌরব উজ্জ্বল ভূমিকা পালন করে। ’৬৬ এর ছয় দফা নিয়ে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা দেশের প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, হাট-বাজার, মাঠে-ঘাটে ছড়িয়ে পড়ে। এছাড়াও শিক্ষা আন্দোলন এবং গণঅভ্যুত্থানসহ ’৭০ এর নির্বাচন ও ’৭১ এর মুক্তিযুদ্ধে ছাত্রলীগ গৌরব উজ্জ্বল ভূমিকা লেখা থাকবে স্বর্ণাক্ষরে। নব্বইয়ের দশকের স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনেও ইতিহাসের স্বাক্ষী হয়ে অগ্রভাগে সৈনিক ছিল সেই ছাত্রলীগই।
ইতিহাসের বাঁকে বাঁকে বিভিন্ন পর্যায়ে নেতৃত্ব দেয়া এই সংগঠনের নেতাকর্মীরা পরে জাতীয় রাজনীতিতেও নেতৃত্ব দিয়েছেন এবং এখনও দিয়ে যাচ্ছেন। বর্তমান জাতীয় রাজনীতির অনেক শীর্ষনেতার রাজনীতিতে হাতে খড়িও হয়েছে ছাত্রলীগ থেকে।

একদল লোভী স্বার্থান্ধ গোষ্ঠী ষড়যন্ত্রের জাল বুনছে ঘরে বাইরে। এই সকল বাধা সংকট উত্তরণে শেখ হাসিনার পাশে দরকার অার্দশিক কর্মীদের। যারা জীবনবাজী রাখতে প্রস্তুত সকল সংকটে। আজ তারা ফিরে আসুক সকল সিন্ডিকেট ভেঙে আপনার মমতার ছায়াতলে। ওয়ান ইলেভেনে দেখেছি অনেক তুখোড় নেতাদের আপোষকামিতা,দেখেছি ভিন্ন সুরে কথা বলতে। অথচ গুটিকয়েক ছাত্রনেতারা সেদিন মিছিল নিয়ে রাজপথে নেমেছিল,আপনার মুক্তির আন্দোলনে।

তুমুল আন্দোলনের মুখে আপনাকে মুক্তি দিতে বাধ্য হয়েছিল তৎকালীন সেনাশাসিত সরকার। আজ গ্রুপিং এর কারণে দূরে রাখতে চায় পরিশ্রমী অার্দশিক কর্মীদের। তারা ভিন্ন আদর্শের লোকেদের অনুপ্রবেশ করিয়ে আপনার হাতকে দুর্বল করতে চায়। আপনার সকল অর্জনকে বিতর্কিত করতে চায়।

বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর ছাত্রলীগ এবং ছাত্র ইউনিয়ন প্রতিবাদ গড়ে তুলেছিল। শেখ হাসিনাকে বিদেশ থেকে দেশে আনার ব্যাপারে যে দাবি সেটাও তুলেছিল ছাত্রলীগ। জাতির যে কোনো ক্রান্তিকালে ছাত্রলীগই এগিয়ে এসেছে। একটা সংগঠন হিসেবে সারাদেশে ছাত্রলীগের ভূমিকা রয়েছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আপনিই তো বলেছেন-ঝড়-ঝাপটা দুর্যোগ তো আসে,আসবেই। এ সময় হতাশ হওয়া বা ভয় পাওয়ার কিছু নেই। সাহসের সাথে এটা মোকাবেলা করতে হবে। যে যেখানে আছি,যার যার অবস্থানে থেকে এটা মোকাবেলা করতে হবে।

আজ যখন আপনি শত সীমাবদ্ধতা সত্ত্বেও জনগণকে আশার আলো দেখাচ্ছেন। এই করোনা সংকট কালে দৃঢ় হাতে সব সামলে নিচ্ছেন। ঠিক তখনই সমন্বয়হীনতা, আস্থাহীনতাসহ নানা ষড়যন্ত্রের জাল বুনছে ঘরে বাইরে। এই সকল বাধা সংকট উত্তরণে আপনার পাশে দরকার পরীক্ষিত কর্মীদের। যারা জীবনবাজী রাখতে প্রস্তুত সকল সংকটে। আজ তারা ফিরে আসুক সকল সিন্ডিকেট ভেঙে আপনার মমতার ছায়াতলে।

সামর্থ্যের সবটুকু দিয়ে এই দুর্যোগে মানুষের পাশে আছে ছাত্রলীগ। সারাদিন মানুষের সেবায় কাটিয়ে রাতে যখন ঘরে ফেরে তখন অনেক ছাত্রলীগ কর্মীই হয়তো একটু ভাত ডাল আর পেট ভরে পানি খেয়ে ঘুমিয়ে যায়। সারাদিন মানুষের বাড়িতে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দেওয়া ছেলেটার বাড়িতেই হয়তো ঠিকমত চুলা জ্বলে না।

ছাত্রলীগ কান্না লুকিয়ে হাসতে জানে। বঙ্গবন্ধু,দেশ, দেশের মানুষ তার তাদের আপার প্রশ্নে আপোষহীন ছাত্রলীগের প্রতিটা কর্মী। হ্যাঁ তাদের পকেটে হয়তো তিনবেলা খাওয়ার টাকা থাকে না। কিন্তু তাদের বুকপাজরে বঙ্গবন্ধু থাকে,দেশপ্রেম থাকে। করোনা সংক্রমণের সর্বোচ্চ ঝুঁকিকে একপাশে সরিয়ে রেখে তাই তারা পারে,তারা পারছে মানুষের পাশে থাকতে। এই সংকটে মানুষ কাঁদছে। মানুষ হয়ে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে ছাত্রলীগ।

ছাত্রলীগের পেছনে লাগা যায়,ছাত্রলীগকে নিয়ে মিথ্যা প্রোপাগান্ডা ছড়ানো যায়। এমনকি মিথ্যা গল্পও ফাঁদা যায়। কিন্তু ছাত্রলীগের মেধা,যোগ্যতা,ঔদার্য আর কমিটমেন্টের ধারে কাছেও যাওয়া যায় না।

ওয়ান ইলেভেনের কঠিন সময়ে আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতারা যখন আদর্শের পরীক্ষায় হাবুডুবু খাচ্ছে,লোভের কাছে বশ্যতা স্বীকার করেছে অনেকে। যখন প্রিয় নেত্রীর গ্রেফতারে হতবিহ্বল কর্মীরা। হতাশা,বিভক্তি আর অজানা আশঙ্কায় বিপর্যস্ত আওয়ামী লীগ। এসময় শেখ হাসিনার পক্ষে এক অনবদ্য অবস্থান নেয় ছাত্রলীগ। ত্যাগই যে সবচেয়ে বড় ভালোবাসা,সবচেয়ে বড় কমিটমেন্ট-সেটা চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়েছে ছাত্রলীগ।
ঘড়ে বাইরে সকল ষড়যন্ত্র মোকাবিলা এগিয়ে যাবে ছাত্রলীগ ।

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2020 bulletinnews24.com
Theme Download From ThemesBazar.Com