1. sohelbl02384@gmail.com : admi2017 :
  2. editor@bulletinnews24.com : Bulletin News24 : Bulletin News24
শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০, ০৭:১৬ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
ফ্রান্সে মহানবী সাঃ এর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদে মাইজখাপনে যুবসমাজের বিক্ষোভ ফ্রান্সে মহানবী সাঃ এর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদে কিশোরগঞ্জে ইমাম ও উলামা পরিষদের উদ্যোগে বিক্ষোভ নওগাঁ-০৬ আসনের নব নির্বাচিত সংসদ সদস্য মো. আলহাজ্ব আনোয়ার হোসেন হেলালের শপথ গ্রহণ মাস্ক ব্যবহার করে চিকিৎসা সেবা করুন – স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহা পরিচালক পদ্মা নদিতে ইলিশ রক্ষায় হেলিকপ্টার নিয়ে অভিযান রাসূল(সঃ)কে নিয়ে ফ্রান্সে ব্যাঙ্গ চিত্র ও কটুক্তি করায় স্বাধীনতা ঐক্য ফাউন্ডেশনের মানববন্ধন ঠাকুরগাঁওয়ে ১৫ হাজার পিছ ইয়াবা ও ১০৩ টি মোবাইল সিম সহ ১ জন গ্রেফতার কুড়িগ্রাম প্রেস ক্লাবের ৫৩তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত নওগাঁর ধামইরহাটে রাসায়নিক স্প্রে করে কৃষকের ধান পুড়িয়ে দিয়েছে দূর্বৃত্তরা করিমগঞ্জ থানার ওসি তদন্ত নাহিদ হাসান সুমন কিশোরগঞ্জ জেলার শ্রেষ্ঠ পুলিশ পরিদর্শক নির্বাচিত

ঠাকুরগাঁওয়ে ক্লিনিকের অবহেলায় প্রসূতি মায়ের মৃত্যু

  • আপডেট সময় বুধবার, ১৪ অক্টোবর, ২০২০

সাইমন হোসেন,ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি: ঠাকুরগাঁও শহরে ফ্রেন্ডস অ্যাপোলো নামে একটি বেসরকারি হাসপাতালে অবহেলায় প্রসূতি মায়ের মৃত্যু হয়েছে বলে পরিবার অভিযোগ।

মৃত মাহবুবা আক্তার (২২) নামে মহিলাটি ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জ উপজেলার হাজীপুর ইউনিয়নের শাসর গ্রামের সাদেকুল ইসলামের স্ত্রী।

এই বিষয়ে মাহাবুবা আক্তার এর স্বামী সাদেকুল ইসলামের অভিযোগ করে বলেন,অস্ত্রোপচারের পর তার স্ত্রীর দিকে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তেমন কোন নজর দেয়নি।

পরে সাংবাদিক দের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন ১২ অক্টোবর (সোমবার) রাত সাড়ে ৯টার দিকে শহরের ফ্রেন্ডস অ্যাপোলো হাসপাতাল অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে চিকিৎসক আবিদা সুলতানা তার স্ত্রী মাহবুবার অস্ত্রোপচার করেন এবং মাহবুবার ছেলেসন্তানের জন্ম হয়। এর কিছুক্ষণ পর মাহবুবার রক্তক্ষরণ শুরু হয় মাহাবুবার স্বামী সাদেকুল ইসলাম ক্লিনিকে কর্মরত নার্সদের একাধিকবার বিষয়টি সম্পর্কে বললেও তাদের কোনো সাড়া পায়নি এবং ক্লিনিকের নার্স ও কর্তৃপক্ষ সেবা না দিয়ে উল্টো তারা তাকে অকথ্য ভাষা গালিগালাজ করেন। প্রায় দুই ঘণ্টা পর একজন নার্স এসে তার স্বামীকে এক ব্যাগ রক্ত আনতে বলেন। তাৎক্ষণিক রক্ত যোগাড় করে ক্লিনিক কর্তৃপক্ষের কাছে দেওয়া হলে তারা সেই রক্ত আমার স্ত্রীকে দেন। তার পরও কোনোভাবে রক্তক্ষরণ বন্ধ হচ্ছিল না।অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে কারণে মঙ্গলবার বিকেলে আমার স্ত্রীর শারীরিক অবস্থা খারাপ হয়ে যায় এ সময় কর্তৃপক্ষ রোগীর অবস্থা আশংকাজন মনে করে দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যেতে বলে এবং তাৎক্ষণিকভাবে একটি অ্যাম্বুলেন্সে করে মাহবুবাকে দিনাজপুরে নেওয়ার পথে তিনি মারা যান।”

পারে সাদেকুল ইসলাম ক্লিনিক কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে উদাসীনতা ও অবহেলার অভিযোগ তুলে এর বিচার দাবি করেছেন এর সাথে এই ঘটনায় তিনি মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানান।

এ বিষয়ে চিকিৎসক আবিদা সুলতানা বলেন, “অপারেশন অনেক ভাল হয়েছে। অপারেশনের পর বাচ্চা ও মা সুস্থ ছিলেন। কিন্তু অপরাশেন পরবর্তী ক্লিনিকে অব্যবস্থাপনার কারণে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে।”

পরে এই বিষয়ে হাসপাতালের মালিক বাবলুর রহমান বাবলু কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন বিষয়টি আমি শুনেছি। আমি এখন কিছু করতে পারছি না কারণ এই মুহূর্তে আমি ঢাকায় আছি।”

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2020 bulletinnews24.com
Theme Download From ThemesBazar.Com